আজ | বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Search

নাসিম শাহের হ্যাটট্রিক

চাহিদা নিউজ ডেস্ক | ১০:০৩ অপরাহ্ন, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

chahida-news-1581264182.jpg

২১২ রানের লিড নিয়ে খেলতে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিল বাংলাদেশের ওপেনার সাইফ হাসান ও তামিম ইকবাল। কিন্তু তারা বেশি দূর যেতে পারেননি, ৫৩ রানের মধ্যে দুজন ফেরেন সাজঘরে। এরপর শান্ত খেলছিলেন মুমিনুল হককে নিয়ে। তিনিও বেশি দূর নিয়ে যতে পারেননি, নাসিম শাহের হ্যাটট্রিকে ধস নামে টাইগারদের ব্যাটিংয়ে।

নাসিম শাহের করা ৪০তম ওভারের শেষ তিন বলে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন নাজমুল হোসেন শান্ত, তাইজুল ইসলাম ও মাহমুদউল্লাহ। এরপর ক্রিজে এসে দ্রুত ফেরেন মোহাম্মদ মিথুনও। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪৫ ওভারে ছয় উইকেট হারিয়ে ১২৬ রান। ক্রিজে আছেন মুমিনুল হক ও লিটন দাস। ইনিংস ব্যবধানে হার এড়াতে হলে টাইগারদের করতে হবে ৮৬ রান।

দুই সেঞ্চুরিতে ভর করে রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে ৪৪৫ রান করে ক্ষান্ত হয়েছেন পাকিস্তান। গতকাল শনিবার পুরো দিন আর আজ রোববার মধ্যাহ্ন বিরতির কিছুক্ষণ পর পর্যন্ত ব্যাটিং করে ২১২ লিড দেয় দেশটি।

২১২ রানের লিডের জবাবে ব্যাট করতে নেমেছে বাংলাদেশ। ক্রিজে আছেন তামিম ইকবাল ও সাইফ হাসান। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত টাইগারদের সংগ্রহ কোনো উইকেট না হারিয়ে ৮ রান।

তৃতীয় দিনের শুরুতেও রাহী শুভসূচনা এনে দেন। একে একে উইকেটের দেখা পান রুবেল হোসেন ও এবাদত হোসেন। গতকাল দুজনই ছিলেন উইকেট শূন্য।

পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ ১৪৩ রানের ইনিংস খেলেন বাবর আজম। তিনি মাত্র ২ রানে এবাদতের হাত জীবন পেয়েছিলেন। ১৯৩ বলে তিনি ইনিংসটি খেলেন। ১০০ রান করেন ওপেনার শান মাসুদ। ১৬০ বলে ১১ চারের মারে তিনি এই ইনিংসটি খেলেন। হারিস সোহাইলের ব্যাট থেকে আসে ৭৫ রান এ ছাড়া ৬৫ রানের ইনিংস খেলেন আসাদ শফিক।

টাইগারদের হয়ে সর্বোচ্চ তিন উইকেট করে নিয়েছেন আবু জায়েদ রাহী ও রুবেল হোসেন। দুটি করে উইকেট নেন তাইজুল ইসলাম। একটি করে উইকেট নেন এবাদত।

এর আগে প্রথম ইনিংসে বংলাদেশ ২৩৩ রান করে। সর্বোচ্চ ৬৩ রান করেন মোহাম্মদ মিথুন। এ ছাড়া শান্ত ৪৪, লিটন দাস ৩৩, মুমিনুল ৩০ ও মাহমুদউল্লাহ ২৫ রান করেন। পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ চার উইকেট নেন শাহেন শাহ আফ্রিদী।

  

আপনার মন্তব্য লিখুন