আজ | মঙ্গলবার, ৭ জুলাই ২০২০
Search

বাস ভাড়া ৮০ শতাংশ বৃদ্ধির সুপারিশ

৫:০৪ অপরাহ্ন, ৩০ মে, ২০২০

chahida-news-1590836699.jpg

সীমিত আকারে গণপরিবহণ চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আর এতে যাত্রী সাধারণকে গুণতে হবে বাড়তি ভাড়া। বাস ভাড়া ৮০ শতাংশ বৃদ্ধির সুপারিশ করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) ভাড়া নির্ধারণ কমিটি।

শনিবার বাস মালিকদের সঙ্গে বৈঠক শেষে এ কথা জানান বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. ইউছুব আলী মোল্লা।

বিআরটিএ চেয়ারম্যান বলেন, ‘প্রত্যেক বাসে ৫০ শতাংশ সিট খালি রাখতে হবে। সেই ক্ষেত্রে বাস মালিকরা লোকসানে পড়বে। আমরা আজকে বিআরটিএ’র গণপরিবহণ ভাড়া নির্ধারণ কমিটির সকলের উপস্থিতিতে ৮০ শতাংশ ভাড়া নেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছি। অর্থাৎ ৫০ ভাগ যাত্রীর কাছ থেকে ৮০ ভাগ ভাড়া নেওয়া হবে।’

সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে প্রতিটি বাসে ৫০ ভাগ সিট খালি থাকবে বলে ভাড়া সমন্বয় করতেই এই নতুন ভাড়ার সুপারিশ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বাড়তি ভাড়া প্রসঙ্গে মো. ইউছুব আলী বলেন, ‘ভাড়া তো পকেট থেকে বেশি যাচ্ছে না। স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য, নিজের সেফটির জন্য আপনি কম যাচ্ছেন। যেহেতু দুইজনের জায়গায় আপনি একজন যাচ্ছেন, ৫০ জনের জায়গায় ২৫ জন যাচ্ছেন তাহলে এই ভাড়াটা তো তাকে দিতেই হবে।’

এ বাড়তি ভাড়া কারা মানবে-সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘মানার জন্য তো আমাদের সবাইকেই দায়িত্ব নিতে হবে মালিকপক্ষ, শ্রমিকপক্ষ, প্রশাসন, যাত্রী যারা আছে। আমি মনে করি সকলকেই সমান দায়িত্ব নিতে হবে।’

সরকারি গণপরিবহন বিআরটিসি বাসও চলবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এটা সীমিত আকারে চলবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আপনারা জানেন দুই মাস ধরে গণপরিবহন, বাসগুলো বসা। এগুলোর পার্টস-স্পেয়ার অনেকগুলো বসেও গেছে। সবগুলো একসঙ্গে চালুও করতে পারবে না। আজকে আলোচনা হয়েছে-মালিকপক্ষ, শ্রমিকপক্ষ বলেছেন উনারা একবারে চালু করতে পারবেন না। সবগুলো তো একসঙ্গে চালু করতে পারবেন না, কোন কোম্পানির কতগুলো বাস আছে তা-কোন মালিকের কতগুলো বাস চালাবে সেটা কিন্তু তাদের ওপর নির্ভর করবে। তারা বলেছেন পর্যায়ক্রমে চালু করা হবে।’

সীমিত আকারের ব্যাখ্যায় ইউছুব আলী মোল্লা বলেন, ‘সীমিত আকার হলো প্যাসেঞ্জার ১০০ পার্সেন্ট হতো সেটা ফিফটি পার্সেন্ট হবে।’

  

আপনার মন্তব্য লিখুন