আজ | রবিবার, ৫ জুলাই ২০২০
Search

নামল বাণিজ্য মেলার পর্দা

চাহিদা নিউজ ডেস্ক | ৯:২০ অপরাহ্ন, ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

chahida-news-1581002449.jpg

মাসব্যাপী ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ২৫তম আসরের পর্দা নামলো বৃহস্পতিবার। এর আগে গত সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় সম্পন্ন হয় বাণিজ্য মেলার চলতি আসরের সমাপনী অনুষ্ঠান।

এবার মেলায় মোট ১৪টি ক্যাটাগরিতে ৩৮টি প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। মেলায় দৃষ্টিনন্দন প্যাভিলিয়ন স্থাপনের জন্য সেরা প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন ক্যাটাগরিতে বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছে ফার্নিচার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ইশো।

বৃহস্পতিবার মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, সকাল থেকেই মেলায় লোকজন আসতে থাকে, বিকালের দিকে টিকিট কাউন্টারে দীর্ঘ লাইন দেখা যায়। মেলার বিভিন্ন স্টল ও প্যাভিলিয়নগুলোতে নানা অফার আর মূল্যছাড়ের প্রতিযোগিতা চলে। মাইকে ডেকে বা হাঁকডাক দিয়ে ক্রেতাদের আকৃষ্ট করছেন বিক্রেতারা। কোট-ব্লেজারের দাম ১ হাজারের নিচে নেমে এসেছে। ৬০০-৭০০ টাকায় দরদাম করে ব্লেজার কিনেছেন ক্রেতারা। গৃহস্থালি পণ্য, নারীদের গহনা, শিশুদের খেলনা, নারী-পুরুষের পোশাক এবং খাবার-দাবারসহ সব ধরনের পণ্যে ৩০-৭০ শতাংশ মূল্যছাড় দেয় স্টলগুলো।

বিক্রেতারা জানান, ‘শীতের কারণে মেলার প্রথম দুই সপ্তাহ ক্রেতা সংকট ছিল। তবে শেষদিকে এসে বেশ জমজমাট হয়েছে মেলা। দুটি সাপ্তাহিক ছুটিতে মেলা বন্ধ থাকায় লোকসানের মুখে পড়তে হয়েছিল তাদের। তবে দুই দফায় মেলার সময় বাড়ানোর ফলে সেসব লোকসান কিছুটা পুষিয়ে নিয়েছেন তারা। শেষ সময়ে অধিক লাভ নয় বরং উত্পাদন খরচেই বিক্রি করছেন অনেক পণ্য।’

মেলার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর থেকে জানা যায়, ‘মেলায় লিখিত অভিযোগ পড়েছে ৪৩টি। এর মধ্যে ৩৬টি অভিযোগ সমঝোতা করা হয়েছে। বাকি সাতটি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন অনিয়মের কারণে ২৮টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়েছে। সব মিলিয়ে ৩৫টি প্রতিষ্ঠানকে ১ লাখ ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।’

বরাবরের মতো এবারো বছরের প্রথম দিন ১ জানুয়ারি মাসব্যাপী বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন করা হয়। তবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর কাউন্টডাউন শুরু উপলক্ষে ১০ জানুয়ারি মেলা বন্ধ রাখা হয়। এ ছাড়া এবারের মেলায় প্রথম দিকে ক্রেতা-দর্শনার্থীর সংখ্যা ছিল বেশ কম। এ কারণে মেলার সময় বাড়ানোর দাবি জানায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো। তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে মেলার সময় বাড়িয়ে নতুন করে ৪ ফেব্রুয়ারি নির্ধারণ করা হয়।

সেই সঙ্গে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে ৩১ জানুয়ারি ও ১ ফেব্রুয়ারি মেলা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে আবারও মেলার সময় বাড়ানোর দাবি জানান অংশগ্রহণকারীরা। তাঁদের দাবি মেনে নিয়ে দ্বিতীয় দফায় মেলার সময় দুই দিন বাড়িয়ে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত করা হয়।

মেলার আয়োজক রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্য অনুযায়ী, এবারের মেলায় বাংলাদেশের পাশাপাশি থাইল্যান্ড, ইরান, তুরস্ক, নেপাল, চীন, মালয়েশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ভারত, পাকিস্তান, হংকং, দক্ষিণ কোরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, ভুটান, ব্রুনেই, দুবাই, ইতালি ও তাইওয়ানের প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়।

মেলায় ক্রেতারা যেসব পণ্য কিনতে পারছেন তার মধ্যে অন্যতম দেশীয় বস্ত্র, মেশিনারিজ, কার্পেট, কসমেটিক্স অ্যান্ড বিউটি এইডস, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস, পাট ও পাটজাত পণ্যসামগ্রী, চামড়া/আর্টিফিশিয়াল চামড়া ও জুতাসহ চামড়াজাত পণ্য, স্পোর্টস গুডস, স্যানিটারিওয়্যার, খেলনা, স্টেশনারি, ক্রোকারিজ, প্লাস্টিক সামগ্রী ইত্যাদি।

  

আপনার মন্তব্য লিখুন